তাকবীরে তাশরীক এর সঠিক ইতিহাস

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৪ আগস্ট, ২০১৯

আল্লাহ রাব্বুল আলামিন পবিত্র কুরআনে বলেন
(কুল ইন্না সালাতি ওয়া নুসুকি ও মাহইয়ায়া ও মামাতি লিল্লাহি রাব্বিল আলামিন)(সূরা আনআম নং১৬২)

আর্থাৎ নিশ্চয়ই আমার নামাজ আমার কোরবানি আমার জীবন আমার মরণ সবই আল্লাহ রাব্বুল আলামিন এর সন্তুষ্টির জন্য।
আসলে তাকবিরে তাশরিক তিন শ্রেণীর সম্মানিত নৈকট্যশীল দের দ্বারা গঠিত হয় ১!হযরত জিব্রাইল আঃ২!হযরত ইব্রাহিম আঃ ৩! হযরত ইসমাইল আঃ। যখন নবী ইব্রাহিম আঃ সুতীক্ষ্ণ ছুরি চালাতে ছিলেন ইসমাইল আঃ ছুরির নিচে এমন সময় আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের নির্দেশে জিব্রাইল আঃ আসমান থেকে দুম্বা নিয়ে হাজির হওয়ার সময় অদৃশ্য থেকে এতটুকু বলেন আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার জনমানবহীন জায়গায় হযরত ইব্রাহিম আঃ অদৃশ্য থেকে এই আওয়াজ উপলব্দি করেন তখন তিনি বলে উঠলেন লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার এদিকে এরকম আওয়াজ হযরত ইসমাইল আঃ উপলব্ধি করতে পারলেন তখন তিনি ছুরির নিচ থেকে বলে উঠলেন আল্লাহু আকবার ওয়ালিল্লাহিল হামদ।
এর মাধ্যমে শিক্ষা দেওয়া হলো যে বিপদে আপদে আনন্দে খুশিতে সর্বাবস্থায় আল্লাহর বড়ত্ব বর্ণনা করো নিজের সবকিছুকে আল্লাহর উপর 100% সপর্দ করে দাও তাহলেই পরীক্ষায় উত্তির্ন হবে, এটাই মুমিনের শিক্ষা এবং উচিত এটাই কুরবানির হাকিকত আল্লাহর নৈকট্যর জন্য নিজেদেরকে সঁপে দেওয়া।
হাদিসে পাকের মধ্যে বলা হয়েছে ঈদুল আজহা এটা কি বলা হয়েছে জাতির পিতা ইব্রাহিম আলাই সাল্লাম এর আদর্শ এই তাকবিরে তাশরিক 9 জিলহজ্ব ফজর থেকে নিয়ে 13 ই জিলহজ্ব আসর পর্যন্ত মোট 23 ওয়াক্ত নামাজের ফরজ এর পর পুরুষেরা উচ্চস্বরে মহিলারা নিম্নস্বরে একবার পড়া ওয়াজিব ইমাম-মুক্তাদী মুসাফির গ্রামবাসী শহরবাসী সকলের উপর কেউ ভুলে গেলে এটার আর কোন কাজা নেই, যাতে ছুটে না যায় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখা।
লেখকঃ মুফতি ওমর ফারুক যুক্তিবাদী
কেন্দ্রীয় সভাপতিঃ ইত্তেফাকুল ওয়ায়েজীন বাংলাদেশ
খতীবঃ বায়তুল আমান জামে মসজিদ নাঃগন্জ,ঢাকা
০১৭১০০৭০৫৫৩,,০১৯২১৬৪৭২৬৪

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..