লিফট দেওয়ার নামে বিদেশীনিকে গণধর্ষণ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

রেস্তোরার বাইরে দাঁড়িয়ে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন বিদেশি এক তরুণী। সে সময় মোটরসাইকেল আরোহী এক যুবক তার সামনে এসে দাঁড়ায়। লিফট দিতে চাইলে বিশেষ আপত্তি করেনি সে। কারণ, তখন অনেক রাত হয়েছিল। এই লিফট নিতে গিয়েই গণধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী।

সোমবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটে ভারতের পুনার কোরেগাঁও এলাকায়। গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণী উগান্ডার নাগরিক।

ভারতের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ভারতে ঘুরতে এসে গণধর্ষণের শিকার হলেন এক বিদেশিনি। মোটরসাইকেলে লিফট দেওয়ার নাম করে উগান্ডার ওই তরুণীকে অপহরণ করা হয়। পরে নিরিবিলি জায়গায় নিয়ে গিয়ে দুজন মিলে ওই বিদেশিনিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ।

পুলিশ সূত্রে খবর, সোমবার মধ্যরাতে পুনার কোরেগাঁওয়ে এক রেস্তোরাঁর বাইরে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন ওই তরুণী। সেসময় মোটরসাইকেল আরোহী এক যুবক তার সামনে এসে দাঁড়ায়। তাকে লিফট দিতে চাইলে সে বিশেষ আপত্তি করেনি। কারণ, তখন অনেকই রাত হয়েছিল।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, উগান্ডার ২৮ বছর বয়সী ওই তরুণী জানান, লিফটের প্রস্তাবে সায় দিলে ওই যুবক তার এক বন্ধুকে ফোন করে ডেকে নেয়। তখনো তাদের বদ উদ্দেশ্য বুঝতে পারেননি তিনি। পরে মোটরসাইকেলে দুই যুবকের মাঝে বসেই গন্তব্যের দিকে রওনা দেন তিনি। কিছুদূর এগোনোর পর, মোবাইলে লোকেশন ট্র্যাক করে তিনি বুঝতে পারেন, মোটরসাইকেল চলেছে অন্য রাস্তায়।

সে সময় ওই বিদেশিনি বারবার মোটরসাইকেল দাঁড় করানোর আর্জি জানালেও চালক কথা শোনেনি। আরও কিছুটা দূরে একটি নিরিবিলি জায়গায় নিয়ে গিয়ে দুই বন্ধু মিলে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর যদিও বিদেশিনির আর্জি মেনে তাকে মেইন রোডে ছাড়তে আসে অভিযুক্তরা। সেসময় ওই বিদেশিনি সাহায্যের জন্য চিৎকার করলে, তাকে ফেলেই পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।

এদিকে, রেস্তোরাঁর সামনের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে অভিযুক্তদের শনাক্ত করার চেষ্টা করছে পুলিশ। ওই তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে ইতোমধ্যেই মামলা রুজু করা হয়েছে।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..