সংবাদ শিরোনাম :
নরসিংদীর ২ পৌরসভায় মেয়র পদে ১২ জনসহ মোট ১২৬ জনের মনোনয়ন পত্র জমা মদিনায় মানবিক অবদান রাখায় সম্মাননা পেলেন মুসাফির ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মনোহরদী পৌরসভfয় মেয়র পদে সুজন পূণরায় নির্বাচিত বেলাবতে কাভার্ট ভ্যানের চাপায় কলেজ ছাএী নিহত মনোহরদীসহ দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভার ভোটগ্রহণ সম্পন্ন রায়পুরায় কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতা কাওছারের কম্বল বিতরণ নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১০ পুলিশ সদস্যের প্রতি জেলা পুলিশের শ্রদ্ধা রায়পুরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের অবসরজনিত বিদায় উপলক্ষে আলোচনা সভা নরসিংদীতে নৌকার মাঝির পরিবর্তন, নতুন করে অংক কষছে পৌরবাসী ১৬ জানুয়ারি ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা উঠছে

বঙ্গবন্ধুর ৪ খুনির মুক্তিযোদ্ধা খেতাব স্থগিতের নির্দেশ

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক

বঙ্গবন্ধুর চার খুনির মুক্তিযোদ্ধা খেতাব স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট, একই সাথে ৪ খুনির খেতাব বাতিলের সরকারের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন।

বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার দুপুরে এ আদেশ দিয়েছেন।

যাদের খেতাব স্থগিত করা হয়েছে তারা হলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনি শরিফুল হক ডালিম, এসএইচএমবি নুর চৌধুরী, এএম রাশেদ চৌধুরী ও মুসলেহ উদ্দীন ওরফে মুসলেম উদ্দীন ওরফে হিরন খান ওরফে মুসলেহ উদ্দিন খান।

এর আগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ওই চারজনের খেতাব বাতিল চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সুবীর নন্দী দাশ এই রিট আবেদন করেছিলেন। রিট আবেদনে বলা হয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট ও গেজেটে দেখা গেছে, বঙ্গবন্ধুর পলাতক ছয় খুনির অন্যতম নূর চৌধুরীর নামের সঙ্গে ‘বীর বিক্রম’, শরিফুল হক ডালিমের নামের সঙ্গে ‘বীর উত্তম’, রাশেদ চৌধুরীর নামের সঙ্গে ‘বীর প্রতীক’ ও মোসলেহ উদ্দিন খানের নামের সঙ্গে ‘বীর প্রতীক’ উপাধি রয়েছে।

ওই তালিকা সর্বশেষ হালনাগাদ করা হয়েছে ২০১৫ সালের ১১ আগস্ট। অথচ ১৯৯৮ সালের ৮ নভেম্বর ওই চারজনসহ মোট ১৫ জনকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করেন ঢাকার দায়রা জজ আদালত। ২০০৯ সালের ১৯ নভেম্বর আপিল বিভাগ সেই মামলার চূড়ান্ত রায় দেন।

১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বের জন্য ৭ জনকে বীরশ্রেষ্ঠ, ৬৮ জনকে বীরউত্তম, ১৭৫ জনকে বীরবিক্রম ও ৪২৬ জনকে বীরপ্রতীক উপাধিতে ভূষিত করেন।

এই রায় নিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন বলেন, তারা অনুপ্রবেশকারী ছিলেন বলেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে। এই আদেশে এটাই উঠে এসেছে। এটি একটি যুগান্তকারী আদেশ।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..