1. mostafa0192@gmail.com : admin :
লাকসামে শিশু ও নারী উন্নয়নে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা - আলোকিত খবর
  • E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
লাকসামকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা; ঘর পেলেন আরও ৭৩পরিবার নরসিংদী জেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা পলাশে ৯৫জন গৃহহীন পেল “স্বপ্নের ঠিকানা” ভূমিহীন-গৃহহীন মুক্ত হলো রায়পুরা উপজেলা বর্ণাঢ্য আয়োজনে সাপ্তাহিক বাংলার বর্ণমালা’র ১১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন জাতির পিতার জন্মবার্ষিকীতে কেক কাটলেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় সংসদ মাহমুদাবাদ রাজিউদ্দিন রাজু উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন চরাঞ্চলে শিশু শিক্ষা নিয়ে কাজ করছে অধিকার প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানালেন রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ভৈরবে যুবলীগের উদ্যোগে খলিলুর রহমান লিমনের ১ম মৃত্যু বার্ষিক পালিত

লাকসামে শিশু ও নারী উন্নয়নে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা

  • প্রকাশকাল : মঙ্গলবার, ৩১ মে, ২০২২
  • ৪২ সময়

কোহিনুর প্রীতি, লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:
কুমিল্লা জেলা তথ্য অফিসের আয়োজনে ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ৩১ মে (মঙ্গলবার) সকালে লাকসাম উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সচেতনতামূলক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেতনতামূলক যোগাযোগ কার্যক্রম (৫ম পর্যায়) ১ম সংশোধনী’ শীর্ষক প্রকল্পের জিওবি খাতের অধীনে স্যানিটেশন, পরিবেশ, জন্ম নিবন্ধন, মা ও শিশু স্বাস্থ্য পরিচর্যা, নিরাপদ মাতৃত্ব, যৌতুক, বাল্য বিবাহ ও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ বিষয়ে এ ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মোঃ নুরুল হকের সভাপতিত্বে ও সহকারী তথ্য কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজা মতিন বলেন, জন্মনিবন্ধন একটি শিশুর নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করে। তাই জন্মের সাথে সাথেই শিশুর জন্ম নিবন্ধন করা উচিত।

তিনি আরো বলেন, নারীর প্রতি সহিংসতা ও বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে কন্যা সন্তানের সুশিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। কারণ ক্লাশে ফাস্ট স্টুডেন্ট যদি একজন কন্যা হয় কিংবা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা যদি নারী হয় তাহলে কেউ তাকে ইভটিজিং বা সহিংসতার সাহস পায়না। তাই কন্যা শিশুকে শিক্ষিত, মার্জিত ও দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে।

কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নাজিয়া বিনতে আলম বলেন, মা ও শিশুর স্বাস্থ্য পরিচর্যায় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের বিশেষ ভূমিকা পালন করতে হবে। নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত করতে গর্ভকালীন কমপক্ষে চারবার এবং প্রসব পরবর্তী আরো দুই থেকে তিনবার চিকিৎসকের পরামর্শে চলা জরুরী। এতে মা ও শিশু দু’জনই সুস্থ ও নিরাপদ থাকবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা প্রসাদ কুমার ভাওয়াল, লাকসাম প্রেসক্লাবের সভাপতি তাবারক উল্লাহ কায়েস, উত্তরদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমাম হোসেন।
কর্মশালায় স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক, সাংবাদিক, ধর্মীয় নেতা, জনপ্রতিনিধি ও এনজিও কর্মী অংশগ্রহণ করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...