সংবাদ শিরোনাম :
নরসিংদীর সূর্যমুখী ফুলের বাগানে ভীড় করছে শত শত ফুলপ্রেমী দর্শনার্থী নরসিংদীতে ইটভাটায় মাটি সরবরাহে নদীপাড়ের ফসলি জমিগুলোতে চলছে মাটি কাটার মহোৎসব আত্রাইয়ের গ্রামগুলোতে কুমড়ো বড়ি তৈরির ধুম ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ৭ লাখ ৪১ হাজার জনকে বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে; সংসদে প্রধানমন্ত্রী নরসিংদীতে ৯2–ব্যাচ বন্ধুদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রায়পুরা উপজেলা প্রতিবন্ধী ফোরামের উদ্যোগে শীত বস্ত্র বিতরণ রায়পুরায় প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদানের চেক পেলেন দরিদ্র নেতা-কর্মীরা রায়পুরার পিরিজকান্দি শামসুল উলমু নূরানীর মাদ্রাসার ১ম ইসলামী সম্মেলন সাংবাদিক নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে নরসিংদী জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের দোয়া ও মিলাদ করোনার ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণে আবারও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধের ঘোষণা

৩ নারী মুক্তিযোদ্ধা পেলেন মাথা গোঁজার ঠাঁই

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক

তিন নারী মুক্তিযোদ্ধা পেলেন মাথা গোঁজার ঠাঁই। তাদের কারো নিজের জমি-ঘর ছিলো না। পরিবার নিয়ে ঘুরেছেন এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায়। অবশেষে তাদের দুঃখের দিন শেষ হলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে তারা পেয়েছেন মাথা গোঁজার ঠাই।

ওই ৩ নারী মুক্তিযোদ্ধা হলেন- শীলা গুহ, মনোয়ারা বেগম ও মায়া খাতুন।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের প্রায় ৭০ হাজার ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর প্রদান করেছেন।

এসব গৃহহীনদের মধ্যে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার এই তিন নারী মুক্তিযোদ্ধা ঘর পেয়েছেন। মুক্তিযোদ্ধার সম্মানার্থে তাদের তিন জনের ঘরের রঙ করা হয়েছে লাল-সবুজ।

নতুন ঘর পেয়ে মুক্তিযোদ্ধা শীলা গুহ বলেন, ‘১৯৭১ সালে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় পালিয়ে বেরিয়েছি। আমাদের ঘর বাড়ি কিছুই ছিল না। মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। কষ্টে দিন কাটানোর পর পেলাম প্রধানমন্ত্রীর উপহার এই ঘর। শেষ বয়সে এসে মাথাগোঁজার ঠাই হলো। প্রধানমন্ত্রীর জন্য অনেক দোয়া করি।’

শনিবার বিকেলে এই তিন নারী মুক্তিযোদ্ধাসহ  ১০০ পরিবারের কাছে ঘর হস্তান্তর করেন উপাধ্যক্ষ ড. মো: আব্দুস শহীদ এমপি।

এ বিষয়ে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নজরুল ইসলাম জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে শ্রীমঙ্গলে ৩০০ পরিবারকে ২ শতক জায়গার ওপরে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে। এর মধ্যে ১০০ ঘর আজ হস্তান্তর করা হয়েছে। অন্যগুলোর কাজ চলছে। দ্রুতই ঘরগুলোর কাজ শেষ হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন— দুযোর্গ ও ত্রাণ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের বিভাগীয় যুগ্ম সচিব এটিএম কামরুল ইসলাম তালুকদার, শ্রীমঙ্গল উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান, প্রেমসাগর হাজরা, কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র, জুয়েল আহমেদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুজ্জামান প্রমুখ।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..