সংবাদ শিরোনাম :
রায়পুরায় আসামী ধরতে গিয়ে গ্রামবাসীর হামলা শিকার হয়ে ৪ পুলিশ সদস্য আহত আল্লাহর পক্ষ থেকে আপনার রিজিক আমরা পৌঁছে দিলাম: “মানবতার ফেরিওয়ালা” দেশের কোথাও চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদুল ফিতর শুক্রবার মনোহরদীতে অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী ও টিউবওয়েল বিতরণ নরসিংদীতে বাস-মাইক্রোবাস সংঘর্ষে চিকিৎসক দম্পতিসহ ৩ জন নিহত ফেরি থেকে নামতে গিয়ে হুড়োহুড়িতে ৫ জনের মৃত্যু ঘোড়াশাল পৌর মেয়রের উদ্যোগে ৫ হাজার সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ স্বাস্থ্য বিধি মেনে মাধবদী থানা প্রেসক্লাবের আলোচনা সভা, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত নরসিংদী জেলা যুবদল নেতা মুকাররম ভূঁইয়ার ঈদ শুভেচ্ছা বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে ঈদের ছুটি

রায়পুরায় সম্পত্তির লোভে আপন চাচাকে হত্যা চেষ্ঠার অভিযোগ

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১ মে, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক

নরসিংদীর রায়পুরায় সম্পত্তির লোভে আপন চাচাকে হত্যা চেষ্ঠার অভিযোগ উঠেছে ভাতিজা রুবেল সরকার (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। ২৮ এপ্রিল স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন চাচা মাওলানা জালাল উদ্দিন সরকার (৫৫)। অভিযুক্ত রুবেল সরকার উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের বাঙ্গালীনগর গ্রামের মাওলানা জালাল উদ্দিন সরকারের বড় ভাই আবুল কাশেম সরকারের ছেলে।

মাওলানা জালাল উদ্দিন সরকার সাংবাদিকদের জানান, গত সোমবার (২৬ শে এপ্রিল) সকাল নয়টার দিকে তার ভাতিজা রুবেল হঠাৎ করে রাম দা হাতে নিয়ে  তার বাড়ীতে হামলা চালায়। সে হাতে থাকা রাম দা দিয়ে কুপিয়ে রান্না ঘর মাটির সাথে মিশিয়ে দেন। পরে বসত ঘরে ঢুকে তান্ডব চালায়। এসময় স্টিলের আলমারীতে থাকা নগদ প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা নিয়ে যায় এবং তাকে বাড়ি ঘর ছেড়ে দিতে বলে। যদি সে বাড়িতে আসে তাহলে তাকে হত্যার  হুমকি দেয়। বিকেলের দিকে রুবেল জালাল উদ্দিনকে বাড়ীর কাছে দেখতে পেয়ে রাম দা নিয়ে তাড়া করে। জালাল উদ্দিন ছুটতে ছুটতে চরসুবুদ্ধি পুলের ঘাট বাজারে পৌছে। ভাতিজা রুবেলও তার পিছু নিয়ে সেখানে হাজির হয়ে চাচা জালাল উদ্দিনকে হত্যা করার চেষ্টা চালায়। এসময় উপস্থিত লোকজন এগিয়ে এসে রুবেলের হাত থেকে রাম দা কেড়ে নিলে চাচা জালাল উদ্দিন প্রাণে বেঁচে যায়।বর্তমানে জালাল উদ্দিন  প্রাণ ভয়ে রাস্তায় রাত কাটাচ্ছেন।

বাঙ্গালীনগর গ্রামের বাসিন্দা রবিউল জানান, রুবেল প্রায় সময় জালাল উদ্দিনের বাড়িতে টাকা-পয়সার জন্য হামলা চালাতো। টাকা না দিলে তাকে প্রাণে মেরে ফেোর হুমকি দিতো।

তাজুল ইসলাম নামের একজন বলেন, গত ৬ বছর আগে রুবেল আমাকে রাম দা দিয়ে কুপ দিয়ে হত্যা চেষ্ঠা করেছে ।

মাওলানা জালাল উদ্দিন বলেন, আমার কোনও ছেলে মেয়ে নেই।  আমার সম্পত্তি পাবার জন্য রুবেল আমাকে প্রায় সময় হত্যা করার চেষ্ঠা করে। এখন পর্যন্ত আমার জমি ও নগদ অর্থসহ প্রায় সাড়ে ২২ লাখ টাকার ক্ষতি করেছে। আমি গত ৫ বছরে তার বিরুদ্ধে থানায় তিন বার অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাইনি।  আমি প্রাশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি এবং এর  দৃষ্টান্ত মূলক বিচার দাবী করি। পাশাপাশি আমার জীবনের নিরাপত্তাও দাবী করছি।।

রুবেলের ছোট্ট ভাই শেখ সাদি সাথে যোগাযোগ করলে ঘটনার সত্যতা শিকার করে সে জানান, আমার ভাই নেশাগ্রস্থ। বিষয়টা আমরা পারিবারিক ভাবে জেনেছি।

এব্যাপারে মির্জানগর ইউপির চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবিরের সাথে যোগাযোগের চেষ্ঠা করেও তাকে ফোনে পাওয়া যায় নি।

রায়পুরা থানার সেকেন্ড অফিসার দেব দুলাল বলেন, আমরা অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..