সংবাদ শিরোনাম :
বাইকের হর্ন বাজা” বাবা দিবসে ছোট ছেলের অনুভব লাকসামে প্রধানমন্ত্রীর ঘর উপহার পেলেন ৪৯ গৃহহীন পরিবার নওগাঁয় আরও ৫০২ গৃহহীন পরিবার পেল মাথা গোঁজার ঠাঁই শেরপুরে বৃক্ষরোপণ ও ছাত্রীদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ ঝিনাইগাতীতে গারো পাহাড়ের পাদদেশে প্রধানমন্ত্রীর ঘর বিতরণ নরসিংদীর পলাশে দুই ইউপি নির্বাচনে ভোট আগামীকাল, কেন্দ্রে যাচ্ছে সরঞ্জাম দৌলতপুরে জমি ও বাড়ি পেলেন ৮৮ গৃহহীন পরিবার রায়পুরায় দ্বিতীয় পর্যায়ে মাথা গুজার ঠাই পেল ১০ ভূমিহীন পরিবার কাল ২০৪ ইউপি ও লক্ষ্মীপুর-২ সংসদীয় আসনের ভোট রায়পুরার চরাঞ্চলের টেঁটাযুদ্ধের সর্দার ও হত্যা মামলার আসামী সুমেদ আলী গ্রেফতার

নরসিংদীতে যুবদল নেতা শানু ২ মাস যাবৎ কারারুদ্ধ

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৫ মে, ২০২১

দলের পক্ষ থেকে নেয়া হয়নি কোন কর্মসূচি, পরিবারের ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক

হেফাজতে ইসলামকে উস্কানী তরদেয়ার অভিযোগ এনে নরসিংদীতে জেলা যুবদলের সিনিয়র সহভাপতি শাহেন শাহ মোহাম্মদ শানু’র বিরুদ্ধে দ্রুত বিচারের আওতায় সন্ত্রাস দমন আইনে করা মামলায় কারাগারে বন্দি আছেন। গ্রেফতারের প্রায় ২ মাস সময় অতিবাহিত হলেও দলের পক্ষ থেকে তার মুক্তির দাবীতে কোন কর্মসূচি পালন করা হয়নি। বরং পরিবারের সহযোগিতায় বিএনপিসহ এর অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে নরসিংদী প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলনের আযোজন করা হলে এতে বাধা দেন বিএনপির যুগ্মমহাসচিব, জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকন অভিযোগ পরিবারের সদস্যদের। শাহেন শাহ শানু’র স্ত্রী সাহিদা শানুর নিজের ফেইজবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে এমনই অভিযোগের আভাস পাওয়া যায়। তার দেয়া স্ট্যাটাসটি জেলা জুড়ে আলোচনার ঝড় তুলে।

স্ট্যাটাসটি দেয়ার পর সাহিদা শানুর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, গত মার্চ মাসের শেষে দিকে হেফাজতে ইসলামের আন্দোলনে ঢাকা ও বাহ্মনবাড়ীয়সহ সারাদেশ ছিল উত্তাল। মিটিং, মিছিল, রাজপথ অবরোধসহ ব্যাপক নাশকতা মূলক কর্মকান্ড চালায় হেফাজত কর্মীরা। এই নাশকতার মামলায় সারাদেশে হেফাজতের কর্মীসহ বিএনপির নেতা কর্মীদের গ্রেফতার করা হয়। নরসিংদী বিএনপি’র আন্দোলন সংগ্রামের ক্ষুরধা হিসেবে পরিচিত জেলা যুবদলের সিনিয়র সহভাপতি শাহেন শাহ মোহাম্মদ শানুও একই মামলায় গ্রেফতার হয়। গত ৪ ফেব্রুয়ারী পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেয়।ইতোমধ্যে তার কারাবাসের মেয়াদকাল প্রায় ২ মাস হলে চলছে। কিন্তু তার প্রিয় প্রাণের সংগঠন জেলা যুবদলসহ মূলদল বিএনপি ও সহযোগি সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে তার গ্রেফতারের প্রতিবাদে এবং মুক্তির দাবীতে এ পর্যন্ত কোন কর্মসূচি পালন করা হয়নি।

তিনি বলেন, ওল্টো তাদের সহযোগিতায় সকল সহযোগি সংগঠনের পক্ষ থেকে গত শনিবার (২২ মে) নরসিংদী প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলনের আযোজন করা হলে তাতে বাধা দেন বিএনপির যুগ্মমহাসচিব, জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকন। তিনি সকল নেতাকর্মীদের ওই সম্মেলনে উপস্থিত না থাকার জন্য নির্দেশ দেন। যার ফলে সংবাদ সম্মেলনটি করা সম্ভব হয়নি। সকলের মতামতের ভিত্তিতে ৩/৪ বার সংবাদ সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হলেও অবশেষে তা ব্যর্থই থেকে যায়।

তিনি আরও বলেন, ‘আমার স্বামী আজ জেলখানায় বন্দি অবস্থায় দিনযাপন করছে। স্বামীকে জেলে রেখে আমি এবং আমার সন্তানসহ পরিবারের লোকেরা ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারিনি।ঈদের আনন্দই শুধু নয় সে জেলে যাবার পর এ কয়েক দিন আমাদের পুরো পরিবারের লোকদের বিষাদময় কেটেছে।শুধু আমরাই নই। এলাকার অনেক গরিব-দু:খিসহ শানুর অনেক সুভাকাঙ্খিই তার মুক্তি কামনা করে দোয়া করছে।’ এব্যাপারে নরসিংদী জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: মুকাররম হোসেন ভূইয়ার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, রমজান মাসে যুবদলের পক্ষ থেকে শানুর মুক্তি দাবীতে আমরা একটি মিটিং করেছিলাম। এতোদিন পরিবেশ পরিস্থিতি অনুকূলে ছিলনা বিধায় অতটা মিছিল মিটিং করতে পারিনি। আমরা নিজেরাও দৌড়ের উপর ছিলাম। তবে বর্তমানে সবকিছু একটু স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। তাই এখন শানুর মুক্তি দাবীতে মিটিং মিছিল করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।

সাহিদা শানুর অভিযোগের বিষয়টিরে ব্যাপারে খায়রুল কবির খোকনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, শানুর স্ত্রী হয়তো আমাকে ভুল বুঝেছে। একটা ভুল ধারণা নিয়ে হয়তো এই স্ট্যাটাসটা দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আমি কাউকে সংবাদ সম্মেলনে যেতে নিষেধ করেছি এটা ভুল। তবে প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করা সমেচিন হবেনা সেটাই আমি শানু পরিবারকে জানিয়েছিলাম।’

 

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..