বৃদ্ধ বুরুজ মিয়ার চিকিৎসায় এগিয়ে আসলেন শিল্পমন্ত্রী পুত্র সাদী

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১

মনোহরদী প্রতিনিধি

নরসিংদী মনোহরদীর শ্রবন প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ মোঃ বুরুজ মিয়া (৫৯)’র চিকিৎসায়  এগিয়ে আসনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্পমন্ত্রী এডভোকেট নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের ছেলে ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের কার্যকরী সদস্য মঞ্জুরুল মজিদ মাহমুদ সাদী। তিনি চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করেন। বুরুজ মিয়া বাড়ী উপজেলার গোতাশিয়া ইউনিয়নের বাঘিবাড়ি গ্রামে। তিনি একজন শুঁটকি ব্যবসায়ী।

জানা যায়, গত কয়েকদিন আগে শুঁটকি ব্যবসায়ী শ্রবন প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ বুরুজ মিয়া হাতিরদিয়া বাজার থেকে ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা যোগে বাড়ি ফেরার পথে গোতাশিয়া গালর্স স্কুল মোড়ে আসলে অটোরিক্সাটি উল্টে গিলে তিনি একটি পায়ে আঘাত প্রাপ্ত হন। এ অবস্থায় গুরুত্বর জখম নিয়ে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি হন।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তার জখমী পায়ে অবস্থা ব্যাখা দিতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের পাঁ কেটে ফেলার কথা জানায় অন্যথায় ব্যয়বহুল মেটাল ইন প্লান্ট (রড) লাগানোর পরামর্শ দেন। এ অবস্থায় অসহায় পরিবারটি আত্মীয়-স্বজনসহ গ্রামের মানুষের কাছে সাহায্যের আবেদন জানায়।

তার দূর্বস্থার বিষয় শিল্পমন্ত্রীরপুত্র মঞ্জুরুল মজিদ মাহমুদ সাদী গোতাশিয়া ইউপি সদস্য কাজল মিয়ার কাছ থেকে অবগত হন এবং তাকে শ্রবন প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ মোঃ বুরুজ মিয়া চিকিৎসার দায়িত্ব নেয়ার কথা জানান তিনি।

পরে মন্ত্রীপুত্র সাদীর সহায়তায় কয়েকদিন আগে বুরুজ মিয়ারপায়ের সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়।

এই ব্যাপারে আহত বুরুজ মিয়ার পুত্রবধু তানিয়া আক্তার বলেন, ‘আমি আল্লাহর কাছে সুকরিয়া জানাই সেই সাথে সাদী ভাইয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বলছি আমাদের পারিবারের আর্থিক অবস্থা ভাল না থাকায় আমার শশুরের চিকিৎসা করতে গিয়ে কুল-কিনারা না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা দিশেহারা অবস্থায় ছিলাম। এমনিই এক অবস্থায় উদার মানুষিকতা সম্পন্ন সাদী সাদী ভাই আমাদের পরিবারের এ বিপদে পাশে দাঁড়ান। তার জন্য আমরা ওনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করতে পারব না।’

এ বিষয়ে মঞ্জুরুল মজিদ মাহমুদ সাদী বলেন, ‘আমার শ্রদ্ধেয় বাবা মনোহরদী ও বেলাব জনসাধারণের জন্য দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। উনারই পথ ধরে আমি দল মত নির্বিশেষে সমাজের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই। অসহায় ও দরিদ্র বলে অর্থাভাবে একজন বৃদ্ধ ব্যক্তির চিকিৎসা বিঘ্নিত হতে পারে না। আমি সকলের কাছে দুআ চাই যেন সবার সুখে-দুঃখের অংশীদার হতে পারি।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..