বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আজ সাংবাদিক সোহেল রানার জন্মদিন যশোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা জনসমুদ্রে পরিনত নওগাঁর আত্রাই উপজেলা আনসার ও ভিডিপি সমাবেশ অনুষ্ঠিত নরসিংদী জেলা প্রবাসী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের হুন্ডির বিরুদ্ধে সচেতনতা কর্মসূচীতে সমন্বয়ক তুহিন ভৈরবে গৃহবধূকে ৩ তলা থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে রায়পুরায় টিপিপিএল ক্রিকেট ফাইনালে ভাই ব্রাদার্স জয়ী জাতির পিতার আদর্শ প্রতিষ্ঠা করাই আমাদের মূল লক্ষ্য -বাহাউদ্দিন নাসিম স্কুলে না পড়িয়েও বেতন নিচ্ছেন নিয়মিত নরসিংদীতে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশেুদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে যশোরের অভয়নগরে আনন্দ মিছিল

লোডশেডিং নিয়ে সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৫ Time View

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, লোডশেডিং নিয়ে আপাতত কিছুই করার নেই। সহসাই বিদ্যুৎ পরিস্থিতির উন্নতি হবে না। সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে।

 

মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে বিদ্যুৎ ভবনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় তিনি বলেন, শিল্পকারখানায় গ্যাস সরবরাহ করতে গিয়ে বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো সংকটে পড়েছে। ফলে মধ্যরাতে লোডশেডিং হচ্ছে। শিল্পখাতে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার কারণে সক্ষমতা থাকলেও বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাচ্ছে না।

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে অফিস সময় পরিবর্তন করা হলো, এখন আরও বেশি লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ মানুষ। সবকিছু মিলিয়ে পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে- জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমার মনে হয় খারাপের দিকে যাচ্ছে এটা সত্য কথা, তবে বেশি খারাপের দিকে যাচ্ছে না। আমাদের ধারণা ছিলো অক্টোবরের দিকে বিদ্যুতের চাহিদা কমে আসবে। কারণ তখন আবহাওয়া ঠান্ডা হয়ে যাবে। কমের মধ্যে আমরা এটা ম্যানেজ করতে পারবো। এছাড়া আমরা জ্বালানি আনতে পারছি না, আমাদের বিদ্যুৎকেন্দ্র বসে আছে।

নসরুল হামিদ আরও বলেন, তাপমাত্রা কমলে চাহিদা কমে যাবে। চাহিদা কমলে বিদ্যুৎ ম্যানেজ করতে পারবো।

 

এসময় প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে সাত হাজার মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র রয়েছে যা জ্বালানি তেলে চলে। আর ১১ হাজার মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র চলে গ্যাসে। বাকি সোলারের মাধ্যমে বা বিদেশ থেকে আনা হচ্ছে।

নসরুল হামিদ বলেন, সবকিছু মিলিয়ে আমাদের (বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা) সাড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার মেগাওয়াট রয়েছে। পুরো সিস্টেমের মধ্যে পাঁচ হাজার মেগাওয়াট আমি গ্যাসে চালাতে পারছি।

‘আমরা মনে করেছিলাম, চাহিদা কমে আসবে। কিন্তু আবহাওয়ার যে অবস্থা, যে পরিমাণ গরম। বিদ্যুতের চাহিদা আগের মতোই রয়ে গেছে। এটা একটা বড় বিষয়। আমি আশা করেছিলাম গ্যাসের দাম কমে আসবে বিশ্বব্যাপী, যদিও কিছুটা কমেছে স্পট মার্কেটে। কিন্তু যে গ্যাস ৫ ডলারে কিনতাম সেটা এখন ২৮ ডলার হয়েছে। যেটা গত মাসের আগের মাসে ছিল ৪৭ ডলার। কমার পরও আমার জন্য তো এটা বেশি। এছাড়া ডলারের দামও বেড়েছে।

নসরুল হামিদ বলেন, এজন্য আমি মনে করি, একটু ধৈর্য ধরা দরকার। গত মাসে বলছিলাম, অক্টোবর থেকে হয়তো আমরা লোডশেডিং থেকে বেরিয়ে আসবো।

দীর্ঘমেয়াদী চুক্তির আওতায় এখন গ্যাস নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্পট মার্কেট থেকে যেটা নিতাম সেটা নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছি।

লোডশেডিংয়ের কারণে সবার কষ্ট হচ্ছে জানিয়ে নসরুল হামিদ বলেন, গতকাল আমার বাড়িতে রাত দেড়টার পর বিদ্যুৎ ছিল না। সবাই ধৈর্য ধরেন, এটা একটা বিশেষ পরিস্থিতি। সামনের বছর আরও খারাপের দিকে যেতে পারে। বিশ্বব্যাপী খাদ্যের অভাব দেখা দিতে পারে। এটা আমাদের কথা নয়, জাতিসংঘের কথা।

কৃষিতে সেচ ব্যবস্থা সচল রাখাই প্রধান লক্ষ্য উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের লক্ষ্য হলো শিল্পকারখানায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কতটুকু সহনীয় পর্যায়ে রাখতে পারি।

গ্রামে কোথাও কোথাও আট ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে জানিয়ে নসরুল হামিদ বলেন, জ্বালানি ঠিকমতো না পেলে এটা (লোডশেডিং) ম্যানেজ করা সম্ভব নয়। জ্বালানি পাওয়ার জন্য অতিরিক্ত অর্থ দরকার, সেই পরিমাণ অর্থ আমাদের কাছে নেই। সেই পরিমাণ অর্থ নিয়ে যদি ডলার কিনতে চাই, তবে ডলারের ওপর চাপ সৃষ্টি হবে। সেখানে আমরা কন্ট্রোলে আছি।

সূত্র: এবিনিউজ

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
bi-alokitokhobor